AnuTrickz
QUESTION or DOUBT ? You can Ask Questions and Receive Answers from other members of the community
Ask Me

Join Us





গণিতের সকল সূত্র সমূহ - All Math Formula in Bengali - পাটিগণিত | বীজগণিত | ত্রিকোনমিতি | পরিমিতি

গণিতের সকল সূত্র সমূহ  - All Math Formula in Bengali - পাটিগণিত | বীজগণিত | ত্রিকোনমিতি | পরিমিতি

গণিতের সকল সূত্র সমূহ  - All Math Formula in Bengali - পাটিগণিত | বীজগণিত | ত্রিকোনমিতি | পরিমিতিগণিতের সকল সূত্র সমূহ  - All Math Formula in Bengali - পাটিগণিত | বীজগণিত | ত্রিকোনমিতি | পরিমিতি

অঙ্কের কিছু ইংরেজি শব্দ পাটিগণিত ও পরিমিতি


অঙ্ক - Digit


অনুপাত - Ratio


মৌলিক সংখ্যা - Prime number


পূর্ণবর্গ - Perfect square


উৎপাদক - Factor


ক্রমিক সমানুপাতী - Continued proportion


ক্রয়মূল্য - Cost price


ক্ষতি - Loss


গড় - Average


গতিবেগ - Velocity


গুণফল - Product


গ.সা.গু - Highest Common Factor


ঘাত - Power


ঘনমূল - Cube root


ঘনক - Cube


ঘনফল - Volume


পূর্নসংখ্যা - Integer


চাপ - Arc


চোঙ - Cylinder


জ্যা - Chord


জোড় সংখ্যা - Even number


ধ্রুবক - Constant


পরিসীমা - Perimeter


বাস্তব - Real


বর্গমূল - Square root


ব্যস্ত অনুপাত - Inverse ratio


বিজোড়সংখ্যা - Odd number


বিক্রয়মূল্য -Selling price


বীজগণিত - Algebra


মূলদ - Rational


মধ্য সমানুপাতী - Mean proportional


যােগফল - Sum


ল.সা.গু - Lowest Common Multiple


লব - Numerator


শতকরা - Percentage


সমানুপাত - Proportion


সমানুপাতী - Proportional


সুদ - Interest


হর - Denominator

জ্যামিতি


অতিভূজ - Hypotenuse


অন্তঃকোণ - Internal angle


অর্ধবৃত্ত - Semi-circle


অন্ত ব্যাসার্ধ - In-radius


আয়তক্ষেত্র - Rectangle


উচ্চতা - Height


কর্ণ - Diagonal


কোণ - Angle


কেন্দ্র - Centre


গােলক - Sphere


চতুর্ভুজ - Quadrilateral


চোঙ - Cylinder


জ্যামিতি - Geometry


দৈর্ঘ্য - Length


পঞ্চভূজ - Pentagon


প্রস্থ - Breadth


পূরককোন - Complementary angles


বাহু - Side


বৃত্ত - Circle


ব্যাসার্ধ - Radius


ব্যাস - Diameter


বহুভূজ - Polygon


বর্গক্ষেত্র - Square


বহি:স্থ - External


শঙ্কু - Cone


সমকোণ - Right angle


সমবাহু ত্রিভূজ - Equilateral triangle


অসমবাহু ত্রিভূজ - Scalene triangle


সমদ্বিবাহু ত্রিভূজ - Isosceles Triangle


সমকোণী ত্রিভুজ - Right angled triangle


সূক্ষ্মকোণী - Acute angled triangle


স্থূলকোণী ত্রিভুজ - Obtuse angled triangle


সমান্তরাল - Parallel


সরলরেখা - Straight line


সম্পূরক কোণ - Supplementary angles


সদৃশকোণী - Equiangular

বীজগণিতের সূত্র


1. (a+b)² = a²+2ab+b²


2. (a+b)² = (a-b)²+4ab


3. (a-b)² = a²-2ab+b²


4. (a-b)² = (a+b)²-4ab


5. a² + b² = (a+b)²-2ab.


6. a² + b² = (a-b)²+2ab.


7. a²-b² = (a +b)(a -b)


8. 2(a²+b²) = (a+b)²+(a-b)²


9. 4ab = (a+b)²-(a-b)²


10. ab = {(a+b)/2}²-{(a-b)/2}²


11. (a+b+c)² = a²+b²+c²+2(ab+bc+ca)


12. (a+b)³ = a³+3a²b+3ab²+b³


13. (a+b)³ = a³+b³+3ab(a+b)


14. (a-b)³ = a³-3a²b+3ab²-b³


15. (a-b)³ = a³-b³-3ab(a-b)


16. a³+b³ = (a+b) (a²-ab+b²)


17. a³+b³ = (a+b)³-3ab(a+b)


18. a³-b³ = (a-b) (a²+ab+b²)


19. a³-b³ = (a-b)³+3ab(a-b)


20. (a² + b² + c²) = (a + b + c)² – 2(ab + bc + ca)


21. 2 (ab + bc + ca) = (a + b + c)² – (a² + b² + c²)


22. (a + b + c)³ = a³ + b³ + c³ + 3 (a + b) (b + c) (c + a)


23. a³ + b³ + c³ – 3abc = (a+b+c)(a² + b²+ c²–ab–bc– ca)


24. a3 + b3 + c3 – 3abc = ½ (a+b+c) { (a–b)²+(b–c)²+(c–a)²}


25. (x + a) (x + b) = x² + (a + b) x + ab


26. (x + a) (x – b) = x² + (a – b) x – ab


27. (x – a) (x + b) = x² + (b – a) x – ab


28. (x – a) (x – b) = x² – (a + b) x + ab


29. (x+p) (x+q) (x+r) = x³ + (p+q+r) x² + (pq+qr+rp) x +pqr


30. bc (b-c) + ca (c- a) + ab (a - b) = - (b - c) (c- a) (a - b)


31. a² (b- c) + b² (c- a) + c² (a - b) = - (b-c) (c-a) (a - b)


32. a (b² - c²) + b (c² - a²) + c (a² - b²) = (b - c) (c - a) (a - b)


33. a³ (b - c) + b³ (c-a) +c³ (a -b) = - (b-c) (c-a) (a - b)(a + b + c)


34. b²- c² (b² - c²) + c²a² (c² - a²) + a²b² (a² - b²) = -(b - c ) (c - a) (a - b) (b + c) (c + a) (a + b)


35. (ab + bc+ca) (a+b+c) - abc = (a + b)(b + c) (c+a)


36. (b + c) (c + a) (a + b) + abc = (a + b + c) (ab + bc + ca)

আয়তক্ষেত্রের সূত্র


1.আয়তক্ষেত্রের ক্ষেত্রফল = (দৈর্ঘ্য × প্রস্থ) বর্গ একক


2.আয়তক্ষেত্রের পরিসীমা = 2 (দৈর্ঘ্য+প্রস্থ)একক


3.আয়তক্ষেত্রের কর্ণ = √(দৈর্ঘ্য²+প্রস্থ²)একক


4.আয়তক্ষেত্রের দৈর্ঘ্য= ক্ষেত্রফল÷প্রস্ত একক


5.আয়তক্ষেত্রের প্রস্ত= ক্ষেত্রফল÷দৈর্ঘ্য একক


বর্গক্ষেত্রের সূত্র


1.বর্গক্ষেত্রের ক্ষেত্রফল = (যে কোন একটি বাহুর দৈর্ঘ্য)² বর্গ একক


2.বর্গক্ষেত্রের পরিসীমা = 4 × এক বাহুর দৈর্ঘ্য একক


3.বর্গক্ষেত্রের কর্ণ=√2 × এক বাহুর দৈর্ঘ্য একক


4.বর্গক্ষেত্রের বাহু=√ক্ষেত্রফল বা পরিসীমা ÷ 4 একক


ত্রিভূজের সূত্র


1.সমবাহু ত্রিভূজের ক্ষেত্রফল = √¾×(বাহু)²


2.সমবাহু ত্রিভূজের উচ্চতা = √3/2×(বাহু)


3.বিষমবাহু ত্রিভুজের ক্ষেত্রফল = √s(s - a) (s-b) (s-c)


এখানে a, b, c ত্রিভুজের তিনটি বাহুর দৈর্ঘ্য, s = অর্ধপরিসীমা পরিসীমা 2s = (a+b+c)


4. সাধারণ ত্রিভূজের ক্ষেত্রফল = ½


(ভূমি×উচ্চতা) বর্গ একক


5.সমকোণী ত্রিভূজের ক্ষেত্রফল = ½(a×b)


এখানে ত্রিভুজের সমকোণ সংলগ্ন বাহুদ্বয় a এবং b.


6.সমদ্বিবাহু ত্রিভূজের ক্ষেত্রফল = 2√4b²-a²/4 এখানে, a= ভূমি; b= অপর বাহু।


7.ত্রিভুজের উচ্চতা = 2(ক্ষেত্রফল/ভূমি)


8.সমকোণী ত্রিভুজের অতিভুজ =√ লম্ব²+ভূমি²


9.লম্ব =√অতিভূজ²-ভূমি²


10.ভূমি = √অতিভূজ²-লম্ব²


11.সমদ্বিবাহু ত্রিভুজের উচ্চতা = √b² - a²/4


এখানে a= ভূমি; b= সমান দুই বাহুর দৈর্ঘ্য।


12.ত্রিভুজের পরিসীমা=তিন বাহুর সমষ্টি

রম্বসের সূত্র


1.রম্বসের ক্ষেত্রফল = ½× (কর্ণদুইটির গুণফল)


2.রম্বসের পরিসীমা = 4× এক বাহুর দৈর্ঘ্য


সামান্তরিকের সূত্র


1.সামান্তরিকের ক্ষেত্রফল = ভূমি × উচ্চতা =


2.সামান্তরিকের পরিসীমা = 2×(সন্নিহিত বাহুদ্বয়ের সমষ্টি)


ট্রাপিজিয়ামের সূত্র


1. ট্রাপিজিয়ামের ক্ষেত্রফল =½×(সমান্তরাল বাহু দুইটির যােগফল)×উচ্চতা


ঘনকের সূত্র


1.ঘনকের ঘনফল = (যেকোন বাহু)³ ঘন একক


2.ঘনকের সমগ্রতলের ক্ষেত্রফল = 6× বাহু² বর্গ একক


3.ঘনকের কর্ণ = √3×বাহু একক

আয়তঘনকের সূত্র


1.আয়তঘনকের ঘনফল = (দৈৰ্ঘা×প্রস্ত×উচ্চতা) ঘন একক


2.আয়তঘনকের সমগ্রতলের ক্ষেত্রফল = 2(ab + bc + ca) বর্গ একক


[ যেখানে a = দৈর্ঘ্য b = প্রস্ত c = উচ্চতা ]


3.আয়তঘনকের কর্ণ = √a²+b²+c² একক


4. চারি দেওয়ালের ক্ষেত্রফল = 2(দৈর্ঘ্য + প্রস্থ)×উচ্চতা


বৃত্তের সূত্র


1.বৃত্তের ক্ষেত্রফল = πr²=22/7r² {এখানে π=ধ্রুবক 22/7, বৃত্তের ব্যাসার্ধ= r}


2. বৃত্তের পরিধি = 2πr


3. গোলকের পৃষ্ঠতলের ক্ষেত্রফল = 4πr² বর্গ একক


4. গোলকের আয়তন = 4πr³÷3 ঘন একক


5. h উচ্চতায় তলচ্চেদে উৎপন্ন বৃত্তের ব্যাসার্ধ = √r²-h² একক


6.বৃত্তচাপের দৈর্ঘ্য s=πrθ/180° ,


এখানে θ = কোণ


সমবৃত্তভূমিক সিলিন্ডার / বেলনের সূত্র


সমবৃত্তভূমিক সিলিন্ডারের ভূমির ব্যাসার্ধ r এবং উচ্চতা h আর হেলানো তলের উচ্চতা l হলে,


1.সিলিন্ডারের আয়তন = πr²h


2.সিলিন্ডারের বক্রতলের ক্ষেত্রফল (সিএসএ) = 2πrh।


3.সিলিন্ডারের পৃষ্ঠতলের ক্ষেত্রফল (টিএসএ) = 2πr (h + r)

সমবৃত্তভূমিক কোণকের সূত্র


সমবৃত্তভূমিক ভূমির ব্যাসার্ধ r এবং উচ্চতা h আর হেলানো তলের উচ্চতা l হলে,


1.কোণকের বক্রতলের ক্ষেত্রফল = πrl বর্গ একক


2.কোণকের সমতলের ক্ষেত্রফল = πr(r+l) বর্গ একক


3.কোণকের আয়তন = ⅓πr²h ঘন একক


বহুভুজের কর্ণের সংখ্যা = n(n-3)/2


বহুভুজের কোণগুলির সমষ্টি = (2n-4)সমকোণ


এখানে n = বাহুর সংখ্যা


চতুর্ভুজের পরিসীমা = চার বাহুর সমষ্টি


ত্রিকোণমিতির সূত্রাবলী


1. sinθ = लম্ব/অতিভূজ

2. cosθ = ভূমি/অতিভূজ

3. taneθ = लম্ব/ভূমি

4. cotθ = ভূমি/লম্ব

5. secθ = অতিভূজ/ভূমি

6. cosecθ = অতিভূজ/লম্ব

7. sinθ = 1/cosecθ, cosecθ = 1/sinθ

8. cosθ =1/secθ, secθ = 1/cosθ

9. tanθ =1/cotθ, cotθ =1/tanθ

10. sin²θ + cos²θ = 1

11. sin²θ = 1 - cos²θ

12. cos²θ = 1- sin²θ

13. sec²θ - tan²θ = 1

14. sec²θ = 1+ tan²θ

15. tan²θ = sec²θ - 1

16. cosec²θ - cot²θ = 1

17. cosec²θ = cot²θ + 1

18. cot²θ = cosec²θ - 1


বিয়ােগের সূত্রাবলি


1. বিয়ােজন - বিয়োজ্য = বিয়োগফল।

2.বিয়ােজন = বিয়ােগফ + বিয়ােজ্য

3.বিয়ােজ্য = বিয়ােজন-বিয়ােগফল

গুণের সূত্রাবলি


1.গুণফল = গুণ্য × গুণক

2.গুণক = গুণফল ÷ গুণ্য

3.গুণ্য = গুণফল ÷ গুণক


ভাগের সূত্রাবলি


নিঃশেষে বিভাজ্য না হলে।

1. ভাজ্য = ভাজক × ভাগফল + ভাগশেষ।

2. ভাজ্য = (ভাজ্য — ভাগশেষ) ÷ ভাগফল।

3. ভাগফল = (ভাজ্য — ভাগশেষ) ÷ ভাজক।

নিঃশেষে বিভাজ্য হলে।

4. ভাজক = ভাজ্য÷ ভাগফল।

5. ভাগফল = ভাজ্য ÷ ভাজক।

6. ভাজ্য = ভাজক × ভাগফল।


ভগ্নাংশের ল.সা.গু ও গ.সা.গু সূত্রাবলী


1. ভগ্নাংশের গ.সা.গু = লব গুলাের গ.সা.গু / হর গুলাের ল.সা.গু

2. ভগ্নাংশের ল.সা.গু = লব গুলাের ল.সা.গু /হর গুলার গ.সা.গু

3. ভগ্নাংশদ্বয়ের গুণফল = ভগ্নাংশদ্বয়ের ল.সা.গু × ভগ্নাংশদ্বয়ের গ.সা.গু.


গড় নির্ণয়ের সূত্র


1. গড় = রাশি সমষ্টি / রাশি সংখ্যা

2. রাশির সমষ্টি = গড় × রাশির সংখ্যা

3. রাশির সংখ্যা = রাশির সমষ্টি ÷ গড়

4. আয়ের গড় = মােট আয়ের পরিমাণ / মােট লােকের সংখ্যা

5. সংখ্যার গড় = সংখ্যাগুলাের যােগফল / সংখ্যার পরিমান বা সংখ্যা

6. ক্রমিক ধারার গড় = শেষ পদ +১ম পদ /2


সুদকষার পরিমান নির্নয়ের সূত্রাবলী


1. সুদ = (সুদের হার × আসল × সময়) ÷ ১০০

2. সময় = (100 × সুদ) ÷ (আসল × সুদের হার)

3. সুদের হার = (100 × সুদ) ÷ (আসল × সময়)

4. আসল = (100 × সুদ) ÷ (সময় × সুদের হার)

5. আসল = {100 × (সুদ - মূল)} ÷ (100 + সুদের হার × সময় )

6. সুদাসল = আসল + সুদ

7. সুদাসল = আসল × (1 + সুদের হার) × সময় |[চক্রবৃদ্ধি সুদের ক্ষেত্রে]।


লাভ - ক্ষতির এবং ক্রয় - বিক্রয়ের সূত্রাবলী


1. লাভ = বিক্রয়মূল্য-ক্রয়মূল্য

2. ক্ষতি = ক্রয়মূল্য-বিক্রয়মূল্য

3. ক্রয়মূল্য = বিক্রয়মূল্য-লাভ

অথবা

ক্রয়মূল্য = বিক্রয়মূল্য + ক্ষতি

4. বিক্রয়মূল্য = ক্রয়মূল্য + লাভ

অথবা

বিক্রয়মূল্য = ক্রয়মূল্য - ক্ষতি

সরল সুদ -এর সূত্র


যদি আসল = P

সময় =T

সুদের হার = R

সুদ - আসল = A হয়, তাহলে

1. সুদের পরিমাণ = PRT/100

2. আসল = 100 × সুদ - আসল (A) / 100 + TR


কোন কিছুর গতিবেগ 


1. গতিবেগ = অতিক্রান্ত দূরত্ব/সময়

2. অতিক্রান্ত দূরত্ব = গতিবেগ × সময়

3. সময় = মোট দূরত্ব/বেগ

4. স্রোতের অনুকূলে নৌকার কার্যকরী গতিবেগ = নৌকার প্রকৃত গতিবেগ + স্রোতের গতিবেগ।

5. স্রোতের প্রতিকূলে নৌকার কার্যকরী গতিবেগ = নৌকার প্রকৃত গতিবেগ - স্রোতের গতিবেগ

উদাহারণ : 

১. নৌকার গতি স্রোতের অনুকূলে ঘন্টায় 10 কি.মি. এবং স্রোতের প্রতিকূলে 2 কি.মি.। স্রোতের বেগ কত ?

ব্যাখ্যা - স্রোতের বেগ = (স্রোতের অনুকূলে নৌকার বেগ - স্রোতের প্রতিকূলে নৌকার বেগ) /2

= (10 - 2)/2=

= 4 কি.মি.


২. একটি নৌকা স্রোতের অনুকূলে ঘন্টায় 8 কি.মি.এবং স্রোতের প্রতিকূলে ঘন্টায় 4 কি.মি.

যায়। নৌকার বেগ কত ?

ব্যাখ্যা -

নৌকার বেগ = (স্রোতের অনুকূলে নৌকার বেগ+স্রোতের প্রতিকূলে নৌকার বেগ)/2

= (8 + 4)/2

=6 কি.মি.


৩. নৌকা ও স্রোতের বেগ ঘন্টায় যথাক্রমে 10 কি.মি. ও 5 কি.মি.। নদীপথে 45 কি.মি. পথ একবার গিয়ে ফিরে আসতে কত সময় লাগবে?

ব্যাখ্যা -

মােট সময় = [(মােট দূরত্ব/ অনুকূলে বেগ) + (মােট দূরত্ব/প্রতিকূলে বেগ)]

উত্তর:স্রোতের অনুকূলে নৌকারবেগ = (10 + 5) = 15 কি.মি.

স্রোতের প্রতিকূলে নৌকার বেগ = (10 - 5) = 5কি.মি.

[(45/15) + (45/5)]

= 3 + 9

= 12 ঘন্টা


জোড় সংখ্যা ও বিজোড় সংখ্যা সংক্রান্ত


1. জোড় সংখ্যা + জোড় সংখ্যা = জোড় সংখ্যা।

যেমন - 2 + 6 = 8.

2. জোড় সংখ্যা + বিজোড় সংখ্যা = বিজোড় সংখ্যা।

যেমন - 6 + 7 = 13.

3. বিজোড় সংখ্যা + বিজোড় সংখ্যা = জোড় সংখ্যা।

যেমন - 3 + 5 = 8.

4. জোড় সংখ্যা × জোড় সংখ্যা = জোড় সংখ্যা।

যেমন - 6 × 8 = 48.

5. জোড় সংখ্যা × বিজোড় সংখ্যা = জোড় সংখ্যা।

যেমন - 6 × 7 = 42

6. বিজোড় সংখ্যা × বিজোড় সংখ্যা = বিজোড় সংখ্যা।

যেমন - 3 × 9 = 27


1. সমান্তর ধারার ক্রমিক সংখ্যার যোগফল -


(যখন সংখ্যাটি1 থেকে শুরু)1+2+3+4+......+ n হলে এরূপ ধারার সমষ্টি = [n (n + 1)/2]


n = শেষ সংখ্যা বা পদ সংখ্যা s = যোগফল


প্রশ্ন- 1 + 2 + 3 + ....+ 100 =?


সমাধান : [n(n + 1)/2]


= [100(100 + 1)/2]


= 5050


2. সমান্তর ধারার বর্গ যোগ পদ্ধতির ক্ষেত্রে -


প্রথম n পদের বর্গের সমষ্টি


S = [n(n + 1)2n + 1)/6]


(যখন 1² + 2²+ 3² + 4²........ + n²)


প্রশ্ন- (1² + 3²+ 5² + ....... + 31²) সমান কত ?


সমাধান : S = [n(n + 1)2n + 1)/6]


= [31(31 + 1)2 × 31 + 1)/6]


=31


3. সমান্তর ধারার ঘনযোগ পদ্ধতির ক্ষেত্রে-


প্রথম n পদের ঘনের সমষ্টি S = [n(n + 1)/2]2


(যখন 1³ + 2³ + 3³+.............+ n³)


প্রশ্ন- 1³+2³+3³+4³+…………+10³= ?


সমাধান : [n(n + 1)/2]2


= [10(10 + 1)/2]2


= 3025


4. পদ সংখ্যা ও পদ সংখ্যার সমষ্টি নির্নয়ের ক্ষেত্রে-


পদ সংখ্যা N = [(শেষ পদ – প্রথম পদ)/প্রতি পদে বৃদ্ধি] + 1


প্রশ্ন- 5+10+15+…………+50=?


সমাধান : পদসংখ্যা = [(শেষ পদ – প্রথমপদ)/প্রতি পদে বৃদ্ধি] + 1


= [(50 – 5)/5] + 1


=10


সুতরাং পদ সংখ্যার সমষ্টি


= [(5 + 50)/2] ×10


= 275


5. n তম পদ= a + (n - 1)d


এখানে, n =পদসংখ্যা, a = 1ম পদ, d = সাধারণ অন্তর


প্রশ্ন- 5 + 8 + 11+ 14 +.......ধারাটির কোন পদ 302?


সমাধান : ধরি, n তম পদ = 302


বা, a + (n - 1)d = 302


বা, 5 + (n - 1)3 = 302


বা, 3n = 300


বা, n = 100


6. সমান্তর ধারার ক্রমিক বিজোড় সংখ্যার যোগফল - S = M² এখানে, M = মধ্যেমা = (1ম সংখ্যা + শেষ সংখ্যা)/2


প্রশ্ন-1 + 3 + 5 + .......+ 19 = কত?


সমাধান : S = M²


= {(1 + 19)/2}²


= (20/2)²


= 100

বর্গ


(1)² = 1


(11)² = 121


(111)² = 12321


(1111)² = 1234321


(11111)² = 123454321


নিয়ম - 


যতগুলো 1 পাশাপাশি নিয়ে বর্গ করা হবে, বর্গ ফলে 1 থেকে শুরু করে পর পর সেই সংখ্যা পর্যন্ত লিখতে হবে এবং তারপর সেই সংখ্যার পর থেকে অধঃক্রমে পরপর সংখ্যাগুলো লিখে 1 সংখ্যায় শেষ করতে হবে।


(3)² = 9, (33)² = 1089, (333)² = 110889, (3333)² = 11108889, (33333)² = 1111088889


যতগুলি 3 পাশাপাশি নিয়ে বর্গ করা হবে, বর্গ ফলে এককের ঘরে 9 এবং 9 এর বাঁদিকে তার চেয়ে (যতগুলো 3 থাকবে) একটি কম সংখ্যক 8, তার পর বাঁদিকে একটি 0 এবং বাঁদিকে 8 এর সমসংখ্যক 1 বসবে।


(6)² = 36, (66)² = 4356, (666)² = 443556, (6666)² = 44435556, (66666)² = 4444355556


যতগুলি 6 পাশাপাশি নিয়ে বর্গ করা হবে, বর্গ ফলে এককের ঘরে 6 এবং 6 এর বাঁদিকে তার চেয়ে (যতগুলো 6 থাকবে) একটি কম সংখ্যক 5, তার পর বাঁদিকে একটি 3 এবং বাঁদিকে 5 এর সমসংখ্যক 4 বসবে।


(9)² = 81, (99)² = 9801, (999)² = 998001, (9999)² = 99980001, (99999)² = 9999800001



যতগুলি 9 পাশাপাশি নিয়ে বর্গ করা হবে, বর্গ ফলে এককের ঘরে 1 এবং 1 এর বাঁদিকে তার চেয়ে (যতগুলো 9 থাকবে) একটি কম সংখ্যক 0, তার পর বাঁদিকে একটি 8 এবং বাঁদিকে 0 এর সমসংখ্যক 9 বসবে।


1-100 পর্যন্ত মৌলিক সংখ্যা সহজে মনে রাখার উপায় -

শর্টকাট : 44 - 22 - 322 - 321

1থেকে 100 পর্যন্ত মৌলিক সংখ্যা = 25 টি

1থেকে 10 পর্যন্ত মৌলিক সংখ্যা = 4 টি 2, 3, 5, 7

11থেকে 20 পর্যন্ত মৌলিক সংখ্যা = 4 টি 11, 13, 17, 19

21থেকে 30 পর্যন্ত মৌলিক সংখ্যা = 2 টি 23, 29

31থেকে 40 পর্যন্ত মৌলিক সংখ্যা = 2 টি 31, 37

41থেকে 50 পর্যন্ত মৌলিক সংখ্যা = 3 টি 41, 43, 47

51থেকে 60 পর্যন্ত মৌলিক সংখ্যা = 2 টি 53, 59

61থেকে 70 পর্যন্ত মৌলিক সংখ্যা = 2টি 61, 67

71থেকে 80 পর্যন্ত মৌলিক সংখ্যা = 3টি 71, 73, 79

81থেকে 90 পর্যন্ত মৌলিক সংখ্যা = 2টি 83, 89

91থেকে 100 পর্যন্ত মৌলিক সংখ্যা = 1টি 97

1-100 পর্যন্ত মৌলিক সংখ্যা 25 টি

2, 3, 5, 7, 11, 13, 17, 19, 23, 29, 31, 37, 41, 43, 47, 53, 59, 61, 67, 71, 73, 79, 83, 89, 97

1-100পর্যন্ত মৌলিক সংখ্যার যোগফল = 1060।


গণিতের জনকগণ / Father


1. Numerology (সংখ্যাতত্ত্ব) - Pythagoras (পিথাগোরাস)


2. Geometry (জ্যামিতি) - Euclid (ইউক্লিড)


3. Calculus (ক্যালকুলাস) - Newton (নিউটন)


4. Matrix (ম্যাট্রিক্স) - Arthur Cayley (অর্থার ক্যালে)


5. Trigonometry (ত্রিকোণমিতি) - Hipparchus (হিপ্পারচাস)


6. Asthmatic(পাটিগণিত) - Brahmagupta (ব্রহ্মগুপ্ত)


7. Algebra (বীজগণিত) - Muhammad ibn Musa al-Khwarizmi (মােহাম্মদ মুসা আল খারিজমী)


8. Logarithm (লগারিদম) - John Napier (জন নেপিয়ার)


9. Set theory (সেট তত্ত্ব) - George Cantor (জর্জ ক্যান্টর)


10. Zero (শূন্য) - Brahmagupta (ব্রহ্মগুপ্ত)


রোমান সংখ্যা≠ (Roman numerals)


1: I, 2: II, 3: III, 4: IV, 5: V, 6: VI, 7: VII, 8: VIII, 9: IX, 10: X, 11: XI, 12: XII, 13: XIII, 14: XIV, 15: XV, 16: XVI, 17: XVII, 18: XVIII, 19: XIX, 20: XX, 30: XXX, 40: XL, 50: L, 60: LX, 70: LXX, 80: LXXX, 90: XC, 100: C, 200: CC, 300: CCC, 400: CD, 500: D, 600: DC, 700: DCC, 800: DCCC, 900: CM, 1000: M

Post a Comment

0 Comments
* Please Don't Spam Here. All the Comments are Reviewed by Admin.

Top Post Ad

Below Post Ad

Ads Area